BSNL এ ৬৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করে, গ্রামে গ্রামে ইন্টারনেট পৌঁছাতে চলেছে।

Jacksons

Updated on:

BSNL

২০২৩ সালে, ভারতের জনপ্রিয় সংযোগ সংস্থা BSNL এবং ভারতীয় ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক লিমিটেড (BBNL) একত্রিত হয়েছিলেন ভারতনেট প্রকল্পের দক্ষতার সাথে সম্পন্নতা নিশ্চিত করতে। এই প্রকল্পে, BBNL একটি বিশেষ পারপাস ভেহিক্যাল (SPV) হিসেবে কাজ করে, যা ভারতনেট প্রকল্পের বাস্তবায়নের জন্য ভারতীয় সরকারের কেন্দ্রীয় সহায়তা প্রাপ্ত করে।

ভারতনেট প্রকল্প হল একটি সরকারি উচ্চাভিলাষী প্রযুক্তি প্রকল্প, যার লক্ষ্য ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে ইন্টারনেট সংযোগের বৃদ্ধি করা। এই প্রকল্পের মাধ্যমে ১,৬৪,০০০ গ্রাম পঞ্চায়েতকে আধুনিক সংযোগ সুবিধা সরবরাহ করা হচ্ছে এবং ৪৭,০০০ গ্রাম পঞ্চায়েতে নতুন ফাইবার কানেকশন প্রদান করা হচ্ছে। এই প্রকল্পের প্রায় ১.৩৯ লক্ষ কোটি টাকা ব্যয় হয়েছে এবং ভারত সরকার এই প্রকল্পের সম্পাদনায় সক্ষম হওয়ার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এখন, ভারতীয় সঞ্চার নিগম লিমিটেড (BSNL) ভারতনেট প্রকল্পের তৃতীয় ধাপের বাস্তবায়নের জন্য ৬৫,০০০ কোটি টাকার নতুন টেন্ডার প্রকাশ করেছে। এই প্রকল্প এর মাধ্যমে সংযোগের সুবিধা আরও বৃদ্ধি পেতে পারে এবং অধিক প্রায় অঞ্চলে ইন্টারনেট সেবা উন্নত করা যাবে।

২০২৩ সালে, ভারতে BSNL এবং BBNL (ভারত ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক লিমিটেড) এমন প্রকল্পের উন্নতির দিকে পথ প্রশস্ত করেছিল যা ইন্টারনেট সংযোগের সাথে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। উল্লেখ্য, BBNL হল একটি স্পেশাল পাবলিক ভেহিক্যাল (SPV), যা ভারতনেট প্রকল্পের অনুমোদিত উদ্দেশ্যগুলির সাথে দক্ষতার সাথে সম্প্রচার করতে নিযুক্ত হয়েছিল।

ET-র রিপোর্ট অনুযায়ী, BSNL মধ্যপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরপ্রদেশ, বিহার, রাজস্থান সহ মোট ১৬টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল (UTs) জুড়ে বিড করার জন্য একাধিক সংস্থাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। এই অনুমোদিত উদ্দেশ্যগুলি পরিষেবা প্রদানের জন্য সময়ের সাথে সাথে এই রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মাধ্যমে ইন্টারনেট সংযোগের অগ্রগতি ও একটি স্থায়ী প্রণালী প্রতিষ্ঠা করতে সহায়ক হতে পারে।

তবে, রাজ্যের উপর নির্ভর করে বিড করার মূল্য ৫০ কোটি থেকে ৩৭৫ কোটি টাকা হতে পারে। আর একটি প্যাকেজের জন্য গত তিন আর্থিক বছরের বার্ষিক টার্নওভার কমপক্ষে ৩২৫ কোটি টাকা হতে হবে, যা বাজেট পরিকল্পনা এবং অন্যান্য বাজেটের ব্যবস্থাপনা কার্যক্রমের সাথে মিলিত হবে।

নতুন প্রজেক্টটির মাধ্যমে এরিকসন, নোকিয়া, এইচএফসিএল, তেজাস নেটওয়ার্ক সহ অনেক বিক্রেতারা লাভবান হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। বিড ডকুমেন্টের আমন্ত্রণে বলা হয়েছে যে, দরদাতাকে অবশ্যই অতীতে OFC (অপটিক্যাল ফাইবার কেবল) নেটওয়ার্ক নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করে থাকতে হবে এবং গত ১০ বছরে সুইচ, রাউটার সহ কমপক্ষে ৮০০ ইউনিট সরঞ্জাম সরবরাহ করে থাকতে হবে।

ভারতনেটের তৃতীয় ধাপ বাস্তবায়নের তিনটি উদ্দেশ্য আছে। যেগুলি হলো- বিএসএনএল ৭,২৬৯ টি ব্লক জুড়ে ইন্টারনেট লিজড লাইন ব্যান্ডউইথ সরবরাহ করবে, বেসরকারী সংস্থাগুলি এক দশক ধরে মিডল-মাইল কানেকশনের তত্ত্বাবধান করবে।

তাদের উদ্দেশ্য হলো দেশের ইন্টারনেট সংযোগের গতি বাড়ানো, অনলাইন সেবা প্রদানের সুযোগ বাড়ানো, সাইবার সিকিউরিটি বৃদ্ধি করা এবং সাইবার অপারেশন ও কার্যক্রমের জন্য সঠিক প্রযুক্তি প্রয়োগ করা।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য

এই প্রকল্পের মূল লক্ষ্য হলো দেশের গ্রামীণ এলাকাগুলিতে ইন্টারনেট সংযোগের অগ্রগতি করা এবং ডিজিটাল সেবা প্রদানের সুযোগ প্রদান করা।

প্রকল্পের বিতরণের পরিক্রমা দেশের বিভিন্ন গ্রামীণ এলাকায় গোটায় শুরু করে পরিক্রমা করছে। প্রকল্পের অংশগুলি সরবরাহ করা হচ্ছে সংগঠনের সম্পর্কে তথ্য ও কমিউনিটি কেন্দ্র, বিদ্যুৎ পার্শ্বসহ বিভিন্ন সুবিধা ও ইনফ্রাস্ট্রাকচার।

গ্রামীণ অঞ্চলে ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে ব্যক্তিরা ডিজিটাল সেবা ব্যবহার করতে পারেন, শিক্ষা লাভ নিতে পারেন, বাজার পরিচালনা করতে পারেন, আরোগ্য সেবা অ্যাক্সেস করতে পারেন, এবং নিজের বাজার ও ব্যবসার দিকে বৃদ্ধি পেতে পারেন।

  1. এই প্রকল্পের মাধ্যমে গ্রামীণ এলাকাগুলিতে ইন্টারনেট সংযোগ উন্নতি পাবে, তবে এর সাফল্য শেষ হতে সময় লাগতে পারে। এটি সম্ভাবনা যে, প্রকল্পটি অনুমানিত সময়ের মধ্যে গ্রামীণ এলাকাগুলিতে ইন্টারনেট সংযোগ উন্নতি পাবে।

উপসংহার

সমগ্র দেশে ইন্টারনেট সংযোগের ব্যবস্থা করে গ্রামীণ এলাকাগুলিতে ডিজিটাল সমৃদ্ধির প্রক্রিয়াকে প্রবর্তনশীলভাবে সাপ্তাহিক। এই অগ্রগতির সাথে সমগ্র সমাজের জন্য শিক্ষার উন্নতি, আর্থিক উন্নতি এবং সুস্থ পরিবেশের মাধ্যমে জীবনযাত্রায় সুবিধা বাড়ানোর সম্ভাবনা তৈরি হতে পারে। BSNL এর প্রয়াসে এই লক্ষ্যের দিকে এক ধাপ অগ্রসর হচ্ছে, এবং তাদের ৬৫ হাজার কোটি টাকা প্রয়োজনীয় ব্যয়ের মাধ্যমে এই লক্ষ্যের প্রাপ্তির ক্ষেত্রে আরও অগ্রগতি আশা করা যেতে পারে।

Leave a Comment