World Car Awards: ভারতে আসার আগেই বিশ্বসেরা গাড়ির পুরস্কার

Jacksons

World Car Awards

World Car বৈদ্যুতিক গাড়ির চাহিদা বাড়াতে সাথে সাথে বাজারে এক প্রতিপত্তির সৃষ্টি হচ্ছে। এই বৈদ্যুতিক গাড়ীগুলির দক্ষিণ কোরিয়ান কোম্পানি Hyundai এবং Kia এর ইভি মডেলগুলি বিশেষভাবে মনোনিবেশ পেয়ে যাচ্ছে। 2024 সালে, Hyundai Ioniq 5 এর সাফল্যের পরে এখন Kia EV9 পায়েছে ‘ওয়ার্ল্ড কার অফ দ্য ইয়ার’ অ্যাওয়ার্ড। এটি একটি প্রযুক্তিগত উজ্জ্বলতা এবং সাস্থ্যকর পরিবেশে অবদানের জন্য প্রশংসিত হয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানের গাড়ীগুলির উজ্জ্বলতা এবং পারিবারিক ব্যবহারযোগ্যতা নিয়ে এই প্রায়শই তাদের এই পুরস্কারের পাত্র হওয়া সঠিক হয়েছে।

এই প্রতিষ্ঠানের গাড়ীর বিজয়ের পেছনে অন্যান্য বৈদ্যুতিক গাড়ি প্রতিষ্ঠানের সংস্পর্শে একটি মানুষের জীবনে উদ্ভাবন এবং সুরক্ষা নিয়ে অনেক ভাবনা রয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই, এই বৈদ্যুতিক গাড়ী বিনিময়ে অনেক জনগণের উচ্চ প্রতিক্রিয়া পেয়েছে এবং এই বিজয় পথে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের প্রেস্টিজ ও প্রতিষ্ঠা চিন্তা গড়েছে। এটি একটি নতুন আধুনিক যুগের শুরু, যেখানে বৈদ্যুতিক গাড়ির প্রযুক্তি এবং সাস্থ্যকর পরিবেশ একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসেবে মনোনিবেশ পাচ্ছে।

“বিশ্বের শীর্ষ বৈদ্যুতিক গাড়ির মধ্যে Kia এবং Hyundai-এর উজ্জ্বল উপস্থিতি”

নতুন অ্যাওয়ার্ড অর্জনের উদ্দেশ্যে কিয়ার সভাপতি এবং সিও হো সুং সং উদ্বোধনে অনুষ্ঠানে বলেন, “Kia EV9 যে ওয়ার্ল্ড কার অফ দ্য ইয়ার এবং ওয়ার্ল্ড ইলেকট্রিক ভেহিকেলের তকমা জিতে নিয়েছে সেজন্য আমরা অত্যন্ত সম্মানিত। এটি একটি সাক্ষ্য যে, সেরা প্রযুক্তি এবং অসাধারণ ডিজাইনের সাথে আমাদের প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থাকার প্রতিক্ষিত আমাদের লক্ষ্য সফল হয়েছে। কিয়া EV9-এর এই সাফল্য আমাদের এমন ব্যতিক্রমী যানবাহন সরবরাহ করতে উদ্দীপ্ত করবে, যা সারা বিশ্বের গ্রাহকদের জন্য ড্রাইভিংয়ের অভিজ্ঞতার সংজ্ঞা বদলে দেবে।”

এই অনুষ্ঠানে, ভলভোর ছোট ইলেকট্রিক গাড়িটিও খালি হাতে বাড়ি ফেরেনি। এটি জিতে নিয়েছে ‘ওয়ার্ল্ড আরবান কার’ অ্যাওয়ার্ড। এই মোটরসাইকেলটির প্রতিদ্বন্দ্বিতা চালিয়েছিল লেক্সাস LBX এবং BYD Dolphin। আর পারফরম্যান্স কার ক্যাটেগরি’তে, হুন্ডাই Ioniq 5 বিএমডব্লিউ এম 2 এবং বিএমডব্লিউ XM-কে পেছনে ফেলে শীর্ষস্থান অর্জন করেছে।

এই বছর, হুন্ডাই এবং তাদের সিস্টার ফার্ম কিয়া একসাথে তিনটি বিভাগে সেরা মডেলের তকমা জিতে নিয়েছে। এটির মধ্যে রয়েছে ‘কার অফ দ্য ইয়ার’, ‘ইলেকট্রিক ভেহিকেল’, এবং ‘পারফরম্যান্স কার’।

২০২২ এবং ২০২৩ সালে, আইওনিক ৫ গাড়িটি গড়ে তার অসাধারণ পারফরম্যান্স এবং নতুনত্বের সাথে ‘কার অফ দ্য ইয়ার’ খেতাব জিতেছিল। গত বছরের উচ্চ পারফরম্যান্স গাড়ি হিসেবে Kia EV6 GT প্রকাশ পাওয়ার পরে এই খেতাব তাদের উপর অবিস্মরণীয় ফুটপ্রিন্ট ছেড়ে দিয়েছে। সাধারণত, লাক্সারি কার সেগমেন্টে বিজয়ী হওয়া হল BMW 5 Series/i5, যা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মার্সিডিস-বেঞ্জ E-Class এবং মার্সিডিস EQE SUV সহ অন্যান্য উচ্চ মানের গাড়ির সঙ্গে মানুষের হৃদয় জিতে নিয়েছে।

আধুনিক যানবাহন শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তির দিকে এগিয়ে এগিয়ে এগিয়ে এগিয়ে অগ্রগতি করছে এবং বাংলাদেশে এই প্রযুক্তির অনুপ্রয়োগ করা হয়েছে। আমরা প্রযুক্তিতে অগ্রগতি করছি, যাতে নিজেদের জন্য একটি নতুন স্বপ্ন এবং ভবিষ্যতের যাত্রায় সাথে নিয়ে যাচ্ছি এবং আমরা এই স্বপ্নের অর্জনের জন্য একটি পথ প্রদান করছি। আমাদের প্রযুক্তি এবং যানবাহন উদ্যোগের মাধ্যমে আমরা সামাজিক অবস্থান সহ সাথে বিকল্প প্রযুক্তিতে গতিশীল এবং অবশ্যই উন্নত একটি ভবিষ্যত গড়তে চলেছি।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য

বিশ্ব গাড়ি পুরস্কার গাড়ি ইন্ডাস্ট্রিতে নতুন ইনোভেশন, ডিজাইন এবং প্রযুক্তি উৎপন্ন করতে অনুপ্রাণিত এবং উৎসাহিত করে। এটি গাড়ি উৎপাদনকারীদের প্রতিষ্ঠানিক প্রতিষ্ঠান ও কনসামারকে গাড়ির মান, সুরক্ষা, সাস্থ্য, এবং পরিবারের জন্য প্রয়োজনীয়তা মূলক নির্ধারণ করে।

বিশ্ব গাড়ি পুরস্কারের জন্য গাড়ি উৎপাদনকারী কোম্পানিগুলি প্রতিষ্ঠানিক প্রতিষ্ঠান ও গাড়ির বৈশিষ্ট্য, ডিজাইন, পারফরমেন্স, সাস্থ্য, এবং পরিবারের জন্য প্রয়োজনীয়তা মূলক বিশ্লেষণ করে।

বিশ্ব গাড়ি পুরস্কার প্রদানে পূর্ণাঙ্গভাবে প্রতিষ্ঠানিক প্রতিষ্ঠান ও বিশ্ব গাড়ি পুরস্কার ফাউন্ডেশন দায়ী।

হ্যাঁ, বিশ্ব গাড়ি পুরস্কার প্রাপ্তির জন্য ভারতীয় গাড়ির অংশ অনেকবার নোমিনেট হয়েছে। এই পুরস্কার প্রাপ্তিতে ভারতীয় গাড়িগুলি মূলত তাদের সুস্থ ডিজাইন, পারফরমেন্স, সাস্থ্য, এবং নতুনত্বের জন্য প্রশংসিত হতে পারে।

উপসংহার

বিশ্ব গাড়ি পুরস্কারের সন্মানিত নামগুলি দেখে একে আগ্রহ ও আনন্দের মন্ত্রণা সম্পর্কে মনে হয় যে এই পুরস্কার ভারতের গাড়ি উৎপাদন প্রতিষ্ঠানগুলির জন্য আরও একটি লক্ষ্য হতে পারে। এই পুরস্কারে অংশগ্রহণ করা একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ যা ভারতীয় গাড়ি উৎপাদন শ্রেণীতে একটি স্থান প্রাপ্ত করার দিকে একটি গুরুত্বপূর্ণ অবসান হতে পারে। এই পুরস্কারের মাধ্যমে বিশ্বের গাড়ি উৎপাদন শ্রেণীর উন্নতির উত্সাহ বৃদ্ধি পাবে এবং ভারতের গাড়ি উৎপাদন ক্ষেত্রে একটি নতুন দিক ও সাফল্যের দ্বার উন্মোচন করতে সাহায্য করতে পারে।

Leave a Comment