Mahindra-র নতুন গাড়ি, যা Scorpio X নামে পরিচিত হবে, সেই নামে অসাধারণ ফিচার্স এবং শক্তিশালী ইঞ্জিন সহ আসছে।

Jacksons

Updated on:

Scorpio X

প্যাসেঞ্জার গাড়ির বিষয়ে নতুন কিছু বলার নেই, এটা এখন অনেকের জীবনের অংশ হয়ে গেছে। কিন্তু ট্রাক এবং প্যাসেঞ্জার ভাহিকেলের মধ্যে একটি নতুন জাতীয় যোগ হয়েছে – পিকআপ ট্রাক। এটি যাত্রীদের নিয়ে সহজেই পণ্য পরিবহণ করতে সক্ষম। Toyota এবং Isuzu India সহ অন্যান্য কয়েকটি কোম্পানি এই পপুলার মডেলটি ভারতে বিক্রি করছে। আবার মাহিন্দ্রা এখন এই পথে পা রাখতে চলেছে। সম্প্রতি তারা ভারতে Scorpio X নামের ট্রেডমার্ক দাখিল করেছেন, যা এই দেশে পিক-আপ ভার্সনের জন্য একটি নতুন মাত্রা যোগ করেছে।

মাহিন্দ্রা এই নতুন গাড়িটির সাথে তাদের Global Pik Up কনসেপ্টের প্রোডাকশন রেডি ভার্সন লঞ্চ করতে পারে। গত বছরে তারা ভারতের স্বাধীনতা দিবসের উপলক্ষে এটি উন্মোচন করেছিলেন, যা Scorpio N SUV এর উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে। এই পিকআপ ট্রাকের উদ্ভাবনের পরিণামে মাহিন্দ্রা আশা করছে যে, ২০২৫ সালে এই গাড়ি ভারতের রাস্তায় পথ চলার উপযুক্ত হবে।

মাহিন্দ্রার এই পিকআপ ট্রাকের আগমন নিশ্চিতভাবে ভারতীয় বাজারে একটি নতুন দিক সৃষ্টি করবে। এই গাড়ি সাধারণ যাত্রীগণের পাশাপাশি ব্যবসায়িক পণ্য পরিবহণেও সহায়ক হবে, যা বাজারে আরও একটি বিকল্প হিসেবে উত্তোলন করবে।

বিশ্বব্যাপী পিকআপ কনসেপ্টটি এখন Scorpio X নামে প্রকাশ্যে আসবে।

গত বছর, দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রকাশিত “গ্লোবাল পিক আপ” এর নতুন মডেলটি এসেছে উচ্চ প্রশংসায়। এই নতুন মডেলে Scorpio N এর আলোকপথ এবং আকর্ষণীয় ডিজাইন এলিমেন্ট সৃষ্টি করেছে। এটি প্রথমবারের মতো প্রজন্মের স্করপিও থেকে প্রাথমিক টেললাইটগুলি পেয়েছে, যা এই গাড়িকে একটি আরও আকর্ষণীয় দৃশ্য প্রদান করে।

এই প্রোডাকশন মডেল, যা প্রচুর আশা জন্মায়, এদেশে স্করপিও X নামে পরিচিত হবে। বিভিন্ন রিপোর্ট অনুযায়ী, এই গাড়ির লঞ্চের জন্য আগ্রহী লোকজন অপেক্ষা করছেন যেখানে এটির উচ্চতম মান এবং উচ্চ কার্যক্ষমতা সহ আরও অনেক নতুন ফিচার দেখা যাবে।

মাহিন্দ্রা স্কর্পিও X-এর পরিকাঠামোগত উন্নতির সাথে নতুন প্রজন্মের mHawk ডিজেল ইঞ্জিন এসেছে। এই ইঞ্জিনের সিক্স স্পিড ম্যানুয়াল এবং অটোমেটিক ট্রান্সমিশন বিকল্প সহ, ফোর হুইল ড্রাইভ সিস্টেম ও অন্যান্য উন্নত বৈশিষ্ট্য উল্লেখযোগ্য। এই নতুন ইঞ্জিন ২.২ লিটারের ডিজেল ইঞ্জিন হিসেবে প্রস্তুত হয়েছে, যা ১৭২ এইচপি ক্ষমতা এবং ৪০০ এনএম টর্ক সরবরাহ করতে পারে।

এই গাড়ির অন্যান্য চেয়ে উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হলো ছয়টি এয়ারব্যাগ, সানরুফ, সেমি-অটোমেটিক পার্কিং, অ্যাডভান্সড ড্রাইভার অ্যাসিস্ট্যান্স সিস্টেম (অ্যাডাস), 5G কানেক্টিভিটি, হারমান অডিও সিস্টেম এবং বিভিন্ন ড্রাইভ মোড। এই গাড়িতে একটি প্রাচীন বাংলাদেশের বাজারে উন্নত টেকনোলজির একটি ব্রান্ড যা সম্প্রতি ১২ লাখ থেকে ২২ লাখ টাকা (এক্স-শোরুম) মূল্যে পাওয়া যাবে। এই দামের সাথে তার প্রতিপক্ষ হিসেবে টয়োটা হিলাক্স এবং ইসুজু ডি-ম্যাক্স ভি-ক্রসও রয়েছে।

এই পরিবারের নতুন সদস্য মাহিন্দ্রা স্কর্পিও X-এর উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য এবং উন্নত করে নেয়া প্রযুক্তিগত সুযোগ বাংলাদেশের গাড়ি বাজারে এক নতুন দিকে প্রবেশ করছে।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য

স্কর্পিও X গাড়িতে বিভিন্ন উন্নত ফিচার রয়েছে, যেমন ছয়টি এয়ারব্যাগ, সানরুফ, সেমি-অটোমেটিক পার্কিং, অ্যাডভান্সড ড্রাইভার অ্যাসিস্ট্যান্স সিস্টেম (অ্যাডাস), 5G কানেক্টিভিটি, হারমান অডিও সিস্টেম এবং বিভিন্ন ড্রাইভ মোড।

স্কর্পিও X গাড়ির দাম প্রায় ১২ লাখ থেকে ২২ লাখ টাকা পর্যন্ত (এক্স-শোরুম) হতে পারে, যা বাজারে প্রতিপক্ষ হিসেবে টয়োটা হিলাক্স এবং ইসুজু ডি-ম্যাক্স ভি-ক্রসও সাথে মিলে।

স্কর্পিও X গাড়িতে আপনি সিক্স স্পিড ম্যানুয়াল এবং অটোমেটিক ট্রান্সমিশন সহ উভয় ট্রান্সমিশন অপশন পাবেন।

হ্যাঁ, স্কর্পিও X গাড়িতে বাংলাদেশের জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের ইনফোটেইনমেন্ট সিস্টেম উপলব্ধ, যা সহজেই ব্যবহার করা যাবে এবং গাড়ির অপারেটিং সিস্টেম নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

উপসংহার

সমগ্রভাবে ধারণা করা যায় যে, স্কর্পিও X নামে আসছে Mahindra-র নতুন গাড়ি যেটি একটি দুর্ধর্ষ ইঞ্জিন এবং অভিজ্ঞতার সাথে অনেক উন্নত ফিচার সম্পন্ন। এই গাড়ির mHawk ডিজেল ইঞ্জিন ২.২ লিটারে প্রস্তুত হয়েছে এবং বাহুবলী ক্ষমতা সরবরাহ করতে সক্ষম, যা গাড়ির কারচালকের জন্য সহজলভ্য গতি এবং ক্রুশ বিপজ্জনক শক্তি নিশ্চিত করে। তাছাড়া, এই গাড়িতে বিভিন্ন উন্নত বৈশিষ্ট্য যোগ করে তোলা হয়েছে, যেমন সানরুফ, অটোমেটিক পার্কিং, এয়ারব্যাগ, বিভিন্ন ড্রাইভ মোড, এবং একটি প্রাচীন বাংলাদেশের বাজারে উন্নত টেকনোলজির ব্রান্ড। সহজেই বোঝা যায় যে, স্কর্পিও X গাড়ি মার্কেটে তার দুর্ধর্ষ ইঞ্জিন এবং উন্নত ফিচারের সাথে একটি আকর্ষণীয় অফার প্রতিপাদিত করে।

Leave a Comment