Zerodha’s Nithin Kamath: আপনি তো এই ভুলটি করছেন না, বলেছেন জিরোধার কর্ণধার, যখন তিনি নিজের স্ট্রোকের কারণ জানিয়েছেন।

Jacksons

ফিটনেসে আগ্রহী হিসেবে পরিচিত নীতিন কামাত সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেকটা একটা আদর্শ ছবি প্রকাশ করেছেন। তার ফিটনেস পরিশ্রম ও স্বাস্থ্যকর জীবনধারা সম্পর্কে তার পরিশ্রমের প্রতি লোকের ভালোবাসা ও আদরের কাহিনী সাম্প্রতিক সময়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়েছে। তিনি নিজেকে ফিট রাখার জন্য যথেষ্ট শরীর চর্চাও করে থাকেন এবং সাথে সুষম খাদ্য অনুপ্রাণিত করেন, যা তার স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

বর্তমানে, ডিহাইড্রেশন একটি গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা হয়ে উঠেছে যা বিভিন্ন ঘটনার সাথে জড়িত। এই অসুস্থতা যেহেতু মাদকদ্রব্যের অতিরিক্ত ব্যবহার, মস্তিষ্কের আঘাত, অটোইমিউন ডিসঅর্ডার ইত্যাদি বিভিন্ন কারণে উত্পন্ন হতে পারে, এটি এখন যুবক-যুবতীদের মধ্যেও দেখা যাচ্ছে। অন্যদিকে, সাম্প্রতিক অধ্যয়ন নিজেদের মধ্যে যৌক্তিক পরিমাপ নেয়ার পরিণামে প্রকাশিত হয়েছে যে, ডিহাইড্রেশন স্ট্রোকের মতো জটিল অসুস্থতার কারণ হতে পারে।

জিরোধার (Zerodha) সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা নীতিন কামাত সম্প্রতি নিজের এমনই অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন, তার যা সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রচারিত হয়েছে। তার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সংদেশ ছিল স্বাস্থ্যের জন্য সঠিক যোগাযোগ ও শুধুমাত্র শারীরিক চর্চাই নয়, বরং প্রতিটি মুহূর্তে শরীরের জন্য পর্যাপ্ত পানির প্রয়োজনীয়তা ও প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

Zerodha ব্রোকারের প্রতিষ্ঠাতা নীতিন কামাত কয়েক সপ্তাহ আগে ‘মাইল্ড স্ট্রোক’ এ আক্রান্ত হয়েছিলেন। এই ঘটনার পরে সে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম এক্স-এ একটি সচেতনতা মূলক পোস্ট করেন। নীতিন এক্স এ স্ট্রোকের কারণ সম্পর্কে বিস্তারিত জানান। তিনি বলেন তার বাবার অসুস্থ অবস্থায়, কম ঘুম, ক্লান্তি, ডিহাইড্রেশন এবং অতিরিক্ত ওয়ার্কআউটের প্রভাব ছিল এ ঘটনার। তবে, তিনি বর্তমানে ভাল অবস্থায় আছেন এবং চিকিৎসকেরা অতিরিক্ত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য আরো ছয় মাস পরিশ্রম করতে প্রস্তুত।

নীতিন কামাতের ফিটনেসের প্রতি গভীর আগ্রহ রয়েছে। তিনি নিজেকে ফিট রাখার জন্য ধারণ করেন যে শরীরের চর্চা প্রয়োজন। এছাড়াও, সুষম খাবারের গুরুত্ব দেন। তার ফিটনেস রুটিন ও সুষম আহারের পরিপাটিতে অবশ্য কোনও লাপসুকতা ছিল না।

কামাতের স্ট্রোকের ঘটনার পর সম্প্রতি তার ফলোয়ারদের মধ্যে খুবই ভালো স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতনতা ছড়িয়েছে।

স্ট্রোক একটি জঘন্য সমস্যা যা সাধারণত বৃদ্ধদের মধ্যে দেখা যায়, তবে এটি যুবকদেরও আক্রান্ত করতে পারে। অল্প বয়সের মানুষেরও এই ধরনের হানির শিকার হওয়া সম্ভব। এই কারণে বিশেষজ্ঞরা এখন থেকে সারাদিন প্রচুর পরিমাণে তরল পান করা উচিত বলে পরামর্শ দিচ্ছেন। গরমের সময়ে, শরীরের প্রাণনিয় ক্রিয়াকলাপের জন্য খুবই প্রয়োজনীয় তাপমাত্রা বজায় রাখা এবং প্রতিদিন যত্ন নেওয়া উচিত।

স্ট্রোক বা হৃদরোগে আগ্রহী মানুষের ক্ষেত্রে, নিয়মিত মেডিকেল চেকআপ ও স্ক্রিনিং প্রথমত প্রয়োজনীয় বলে মনে করা হয়। সুষম খাদ্যের পরিমাণ এবং নিয়মিত ব্যায়ামের প্রাকৃতিক প্রভাব রক্ষার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। আরোপর ওজন নিয়ন্ত্রণের জন্য সচেতন থাকা এবং ধূমপান ও অ্যালকোহল নিয়ে সাবধানতা অবলম্বন করা হয়েছে।

স্ট্রোক এবং হৃদরোগের প্রতি ঝুঁকি কমাতে এই পরামর্শগুলি মানুষের জীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। পরিবারে কারো এই ধরনের সমস্যার সঙ্গে যোগাযোগের সুযোগ থাকলে তা নিশ্চিত করা উচিত।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য

নিথিন কামাথ তার স্ট্রোকের পিছনের কারণ ডিহাইড্রেশন হতে পারে বলে জানিয়েছেন।

স্ট্রোক এর ঝুঁকি কমাতে প্রতিটি মুহূর্তে যথাযথ পানির প্রয়োজনীয়তা নিশ্চিত করা জরুরি। পাশাপাশি, পর্যাপ্ত পরিমাণের খাবার খেয়ে থাকা ও সবুজ সবজি ও ফল নাও গ্রহণ করা উচিত।

জিরোধা কর্ণধার অনেকগুলি অনলাইন স্ট্রোক রিস্ক অ্যাসেসমেন্ট টুল প্রদান করে যাতে লোকজনের স্ট্রোক ঝুঁকি অনুমান করা যায়। এছাড়াও, তারা জীবনযোগ পরামর্শ এবং স্ট্রোক প্রতিরোধে প্রযুক্তিগত সহায়তা ও পরামর্শ প্রদান করে।

 

নিথিন কামাথ নিজের স্ট্রোক অভিজ্ঞতা সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রচারিত হয়েছে তার স্ট্রোকের কারণ হিসাবে। তার অভিজ্ঞতা থেকে লোকেরা উপকারিতা উপভোগ করতে পারেন এবং তারা স্ট্রোক প্রতিরোধে সচেতনতা বাড়াতে পারেন।

উপসংহার

সর্বশেষ পোস্ট থেকে প্রকাশিত তথ্য মোতাবেক, জিরোধা কর্ণধার নীতিন কামাত নিজের স্ট্রোকের ঘটনার কারণ হিসেবে কিছু নিজুক্তি দেননি। তবে, তার আলোচনা একটি সামগ্রিক স্বাস্থ্য সচেতনতা সৃষ্টি করেছে, যা তার অনুগামীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ উদাহরণ হতে পারে। তার এই অভিজ্ঞতা দেখে অনেকে নিজের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে এবং নিজের শরীরের যত্ন নেওয়ার মূল্যবান গুরুত্ব স্বীকার করতে পারেন। এই অভিজ্ঞতা প্রকাশের মাধ্যমে তিনি নিজের অনুগামীদের প্রতি সহানুভূতি ও সচেতনতা প্রকাশ করেছেন। এতে মূল্যবান পরামর্শ ও অনুশাসনিক আচরণ গঠনে সাহায্য হতে পারে।

Leave a Comment