AMOLED ডিসপ্লে, 32MP ফ্রন্ট ক্যামেরা সহ, বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যসহিত, Samsung Galaxy A35 5G লঞ্চ হচ্ছে

Jacksons

Galaxy A35

Samsung এ তাদের Galaxy A সিরিজের একটি নতুন অধিষ্ঠিত ফোন, Galaxy A35 5G, শীঘ্রই লঞ্চ হতে চলেছে বলে জানা গিয়েছে। এই মডেলটি ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সার্টিফিকেশন প্ল্যাটফর্মের অনুমোদন প্রাপ্ত করেছে এবং বিভিন্ন রিপোর্ট থেকে আসা তথ্য অনুযায়ী, এটির স্পেসিফিকেশন সম্পর্কে অনেক তথ্য মাঝে আসেছে।

এখন, সেই Galaxy A35 5G ব্লুটুথ এসআইজি (Bluetooth SIG) তে হাজির হয়েছে, যা একটি আরও প্রমুখ লঞ্চের ইঙ্গিত দেয়েছে। এই সার্টিফিকেশন প্ল্যাটফর্ম থেকে উঠা তথ্য থেকে বোঝা যাচ্ছে যে, এই ফোনটি ব্লুটুথ সংযোগের জন্য যত্নশীল এবং নতুন প্রযুক্তি দ্বারা সমর্থিত হবে। তাছাড়া, মোবাইলটির অন্যান্য বৈশিষ্ট্যগুলি সম্পর্কে আরও তথ্য জানতে আমাদের অপেক্ষায় থাকতে থাকুন।

Samsung Galaxy A35 5G-এর ব্লুটুথ SIG হতে অনুমোদন লাভ করেছে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এ৩৫ ৫জি ফোনটি এখন ব্লুটুথ স্পেশাল ইন্টারেস্ট গ্রুপ সার্টিফিকেশন প্ল্যাটফর্মের অনুমোদন অর্জন করেছে। এই তথ্য অনুযায়ী, এর মডেল নম্বর SM-A356B, SM-A356E, SM-A356E_DS, এবং SM-A356B_DS একাধিক ভ্যারিয়েন্টে উপস্থিত থাকবে। এছাড়াও, অনলাইন ডেটাবেস তথা সংগ্রহমানে বলা হচ্ছে যে, এই গ্যালাক্সি এ৩৫ ৫জি ফোনটি ব্লুটুথ ৫.৩ সংযোগের জন্য সমর্থিত হবে। এটি দ্বারা ব্যবহারকারীদের প্রযোজ্য সুবিধা ও অভিজ্ঞতা একসঙ্গে উন্নত করা হয়েছে, যা ব্যবহারকারীদের জন্য একটি সশক্ত এবং নিরাপদ অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে সাহায্য করবে।

এছাড়া, এই ডিভাইসটি ইন্ডিয়ান মার্কেটে আসতে এবং ব্যবহারকারীদের মধ্যে এক জনপ্রিয় হতে এই ডেভেলপমেন্ট প্রয়োজন। ইন্ডিয়ান বাজারে এই ফোনটির প্রবেশ করার আগে, এটি ব্যুরো অফ ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ডস (BIS) প্ল্যাটফর্মেও অনুমোদন প্রাপ্ত করেছিল, এটির মাধ্যমে গ্যালাক্সি এ৩৫ ৫জি-এর ভারতীয় বাজারে প্রবেশ নিশ্চিত হয়েছিল। এই ধারণামূলক এবং পুরানো নতুন বৃদ্ধির জন্য গ্যালাক্সি এ৩৫ ৫জি একটি আকর্ষণীয় অফার হতে পারে এবং ইন্ডিয়ান গ্যালাক্সি প্রেমিকদের মধ্যে একটি জনপ্রিয় চয়ন হতে পারে।

এই সময়ে, ফেডারেল কমিউনিকেশন কমিশন (FCC) এর ওয়েবসাইটেও সম্মিলিত হয়েছে স্যামসাং গ্যালাক্সি এ৩৫ স্মার্টফোনের বিস্তারিত তথ্য। এই ডকুমেন্টে প্রকাশিত স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী, ফোনটি পাঁচ-জি নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করতে পারবে, এবং এটি এনিয়ার ফিল্ড কমিউনিকেশন (NFC) এবং এসডি কার্ড স্লটের সাথে সমর্থিত থাকবে। এটির চার্জার হবে প্রযুক্তিবিদ্যা দৃষ্টিকোণ থেকে উন্নত, কারণ এটি ২৫ ওয়াট ওয়্যার্ড ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট করতে পারবে।

এই ডিভাইসটি যদি গিকবেঞ্চ (GeekBench) বেঞ্চমার্কিং প্ল্যাটফর্মে তাকে মিলে তার প্রদর্শনের জন্য, তার বিস্তারিত তথ্যের অনুসারে, এটি ৬ জিবি র‍্যাম এবং স্যামসাং এক্সিনস ১৩৮০ প্রসেসরের সাথে সমর্থিত থাকবে। এই তথ্য একজন প্রযুক্তি প্রেমীর জন্য একটি সমৃদ্ধ এবং উন্নত অভিজ্ঞান সরবরাহ করতে সক্ষম একটি ডিভাইস হিসেবে এই ফোনটির মাধ্যমে আকর্ষণ সৃষ্টি করতে সক্ষম হতে পারে।

এছাড়াও, ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ১৪ ওএসে চলবে, যা নতুনভাবে সজীব এবং স্মুদ অপারেটিং সিস্টেম অফার করতে প্রস্তুত। ফোনটির সুপারিওর প্রসেসিং ক্ষমতা এবং সহজ ব্যবহারের জন্য এই নতুন অপশনটি ব্যবহারকারীদের জন্য একটি আদর্শ পথে আসতে পারে।

ফোনটির অ্যাট্রাক্টিভ ডিজাইনে থাকা ৬.৬ ইঞ্চির অ্যামোলেড ডিসপ্লে সহ, ১২০ রিফ্রেশ রেটের সাথে আসবে, যা দেখা হতে প্রিমিয়াম অভিজ্ঞতা অফার করতে সক্ষম হবে। ফটোগ্রাফির জন্য, এই ফোনটি পিছনে ৫০ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ এবং সামনে সম্ভবত ৩২ মেগাপিক্সেলের একটি সেলফি ক্যামেরা দেবে, এটির মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা উচ্চ মানের ছবি তৈরি করতে সক্ষম হতে পারে। Samsung Galaxy A35 5G এই বছরের প্রথম ত্রৈমাসিকে লঞ্চ হতে পারে, এটি এখন প্রত্যাশা করা হচ্ছে। কোম্পানির পরিচিতি অনুসারে, এই ফোনটি ব্যবহারকারীদের জন্য একটি সমৃদ্ধ এবং উন্নত স্মার্টফোন অভিজ্ঞতা তৈরি করতে উদ্দীপ্ত হতে চলেছে।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য

১২০ রিফ্রেশ রেট দিয়ে এই ডিসপ্লে চমৎকার মূল্যায়ন দেয়, যেটি দ্রুততা, স্মুদতা, এবং বিনামূল্যে ছবি অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে সক্ষম।

৫০ মেগাপিক্সেল ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ দিয়ে ব্যবহারকারীদের সেলফি, গুলি, এবং স্কোপ ছবি তৈরি করতে সক্ষম হবেন। এটি বিশেষভাবে উচ্চ মেগাপিক্সেল সহ বৃহত্তর সোচাল মাধ্যম প্রযুক্তির প্রেমিকদের জন্য উপকারী।

স্যামসাং গ্যালাক্সি A35 5G এই বছরের প্রথম ত্রৈমাসিকে লঞ্চ হতে পারে, এটি এখন প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

এই ফোনে ৩২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা, এএমওএলইড ডিসপ্লে, এবং পাওয়ারফুল প্রসেসিং ক্ষমতা সহ অনেকগুলি উন্নত বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ব্যবহারকারীদের একটি সুস্থ স্মার্টফোন অভিজ্ঞতা তৈরি করতে সহায় করতে পারে।

উপসংহার

স্যামসাং গ্যালাক্সি A35 5G এর এমওএলইড ডিসপ্লে একটি সুপারিওর ভিউয়িং অভিজ্ঞতা সরবরাহ করতে সক্ষম। প্রতিটি পিক্সেল নিজেই আলো উৎপন্ন করতে পারে, যা চমৎকার বিবর্ধনের মাধ্যমে জীবনমুকুল ছবি প্রদান করতে সক্ষম। এই ডিসপ্লে একটি স্বচ্ছ, ব্রাইট, এবং রেজোলিউশনে অমৃত ছবি অভিজ্ঞতা তৈরি করে, যা ব্যবহারকারীদের সম্পূর্ণ মনোনিবেশে প্রবৃদ্ধি দেয়।

এই ফোনের ৩২ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা সেটআপ দিয়ে ব্যবহারকারীদের ছবি তৈরি করতে একটি নতুন স্তরে উন্নত করা হয়েছে। প্রগ্রেসাইভ ট্রিপল ক্যামেরা ব্যবহার করে এই ফোন পিছনে ৫০ মেগাপিক্সেল সহ শক্তিশালী একটি ক্যামেরা সেটআপ সরবরাহ করে, যা বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে সৃষ্টি করা হয়েছে।

Leave a Comment