KKR স্পিনারটি এখনো চোট‌ সারিয়ে উঠতে পারেননি, তবে তিন সপ্তাহের প্রথম ম্যাচে খেলতে পেরেছেন।

Jacksons

Updated on:

KKR

২০২৪ আইপিএলের জন্য কলকাতা নাইট রাইডার্স একটি স্বাভাবিকভাবেই সম্পদ অধিগ্রহণ করেছিলেন, যখন তারা ২ কোটি টাকায় আফগানিস্তানের অধিনায়ক মুজিব উর রহমানকে তাদের দলে জড়িত করলেন। মুজিবের অবদানের মাধ্যমে তারা তাদের দলের গতি বাড়াতে এবং চ্যাম্পিয়নশিপে উচ্চস্তরের প্রতিযোগিতা করতে উদ্দীপ্ত হয়েছিলেন।

আফগানিস্তানের ক্রিকেটাররা সাম্প্রতিক সময়ে প্রায়ই আন্তর্জাতিক মঞ্চে আসেন, যাতে তারা তাদের দক্ষতা প্রদর্শন করতে পারেন। তবে, সীমিত ওভারের ক্রিকেটে তারা প্রথম পদক্ষেপে অনেক ভালো দিখেছেন, তবে এখনও টেস্ট ক্রিকেটে তাদের কার্যক্ষমতা স্থায়ী হয়নি। সম্প্রতি আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে অবস্থিত একক টেস্ট ম্যাচে আফগানিস্তান অপবাদ সহ্য করেনি।

একেবারে বিপক্ষে আফগানিস্তানের অন্যতম তারকা মুজিব উর রহমান একদিনের সিরিজে আসা চলাকালে চোটে অসুস্থ হন। এ কারণে তিনি তাদের দলে ফিরে আসতে পারেননি, যা দলের জন্য একটি অনিশ্চিততা সৃষ্টি করে।

২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচে আফগানিস্তান দুরন্ত লড়াই চালালেও শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেটে হারের সম্মুখীন হয়। গত মাসের শুরুতেও আফগানরা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট ম্যাচে ১০ উইকেটে হেরে সমর্থকদের হতাশ করে। এর সঙ্গেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩ ম্যাচের একদিনের সিরিজের সময় দলের অন্যতম স্পিনার মুজিব উর রহমান আঙুল মচকে দলের বাইরে চলে যান। এই প্রথম দুটি সিরিজে আফগানিস্তানের পারফর্ম্যান্স অসতিত্বে একটি নতুন উল্লেখযোগ্য মুমুর্ষু সৃষ্টি করেছে।

এবার আইপিএলের (IPL 2024) আগে কলকাতা নাইট রাইডার্সের (Kolkata Knight Riders) এই স্পিনার আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে একদিনের সিরিজেও চোটের কারণে দলের বাইরে চলে গেলেন। গতকাল দল প্রকাশের সময় আফগানিস্তান ক্রিকেটের পক্ষ থেকে এই বিষয়ে বলা হয় “রশিদ খান (Rashid Khan) এবং মুজিব উর রহমান তাদের নিজ নিজ চোট থেকে সেরে উঠছেন এবং নির্বাচনের জন্য তারা এখনও উপলব্ধ হননি।” রশিদ খান পিঠের নিচের দিকে অস্ত্রোপচারের কারণে গত বছরের নভেম্বর থেকে আফগানিস্তানের হয়ে মাঠে নামতে পারেননি। এই চক্রে কলকাতা নাইট রাইডার্স দলের পাশের অবস্থা পরিষ্কার হওয়ায় স্পিনারের অনুপ্রেরণা প্রায়ই এই সময়ে দলের ক্ষতিপূরণের ব্যাপারে অস্বীকার করা হয়।

আফগানিস্তানের স্পিনার তাদের বহু চিন্তিত করা যাচ্ছে কারণ তারা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব গুলি। তাদের অক্সফোর্ড এবং ম্যাচে অঙ্কিত পারফরম্যান্সের পর এই অসুখের কারণে দলের নির্বাচন সম্পর্কে নিশ্চিতভাবে প্রত্যাশা রাখা হয়। এই

আগামী ২০২৪ আইপিএলের সঙ্গে একইসঙ্গে কলকাতা নাইট রাইডার্স এর দলে অসাধারণ এক সাপ্তাহিক প্রতিযোগিতায় হাজির হওয়ার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। আগামী মার্চ ২২ তারিখ থেকে শুরু হতে যাচ্ছে এই অবসরগ্রস্ত ঘটনা, যা সম্প্রতি খোলা হয়েছে। কলকাতা নাইট রাইডার্স দলটি ব্যক্তিগত প্রতিষ্ঠাতা আবদুল আলী খান এবং এনামুল হক রশিদ ওয়াসে মুজিব উর রহমান কাবিলদের দায়িত্বে চলবে।

তাছাড়া, পূর্বের দলে চোটের সময়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রহকারী হিসেবে প্রখ্যাত রশিদ খান আইপিএলে আসার অধিকারী হিসেবে সম্মানিত হচ্ছেন। গত বছরের আইপিএলে, তিনি গুজরাট টাইটান্স দলের জন্য ১৭ ম্যাচে ২৭ টি উইকেট তুলে নিয়েছিলেন। তার উদ্দীপণা আগামী মুকাবেলায় একটি মুদ্রা হিসেবে বিশেষভাবে গণ্য করা হবে।

সচরাচর জিজ্ঞাস্য

স্পিনারের চোট সারিয়ে উঠতে তার চিকিত্সা প্রক্রিয়া আরো সম্পূর্ণভাবে শেষ করা এবং তার প্রশিক্ষণের মাত্রা আরো বাড়ানো আবশ্যক।

স্পিনারের চোটের অসুস্থতার ফলে তার বলগুলির মূল প্রভাবিত হতে পারে, যা তার খেলার কার্যকলাপে নিখাত করে তুলতে পারে।

চোটের সামগ্রিক গুরুত্বের উপর ভিত্তি করে, টিম ম্যানেজমেন্ট আরও একজন প্রফেশনাল স্পিনার বা অভিজ্ঞ খেলোয়াড়ির সাথে চোটের জায়গায় প্রতিস্থাপন করতে পারে।

টিমের পরিবর্তন করা হতে পারে যেখানে অন্য বোলারগুলি চোট পাওয়া অবস্থায় না থাকলেও, অন্য অভিজ্ঞ স্পিনারদের নিয়োগ করা যেতে পারে ম্যাচের ক্ষেত্রে।

উপসংহার

এই অবস্থানে প্রথম ম্যাচের পরিকল্পনা বা উদ্দেশ্য সত্যায়িত হয়নি কিন্তু স্পিনার এখনো চোট সারিয়ে উঠতে পারেননি, এটি একটি আশাবাদী সংকেত। এখানে কলকাতা নাইট রাইডার্সের জন্য স্পিনারের মুজিব উর রহমানের অবশ্যই চিকিৎসা এবং পুনরুদ্ধার প্রক্রিয়ার উপর কেন্দ্রিত হওয়া উচিত। তার সুস্থতা আমন্ত্রিত রকমে সংরক্ষিত রাখা গুরুত্বপূর্ণ যাতে সমগ্র পরিস্থিতিতে দলের সামর্থ্য বাড়ায়। সাধারণভাবে, এই রকম চোট সারানো প্রতিষ্ঠানের পরিচর্যা এবং পরিচালনায় জীবনমুখী উপায়ে নিয়ে আসে বেশিরভাগ দল।

Leave a Comment